Press "Enter" to skip to content

অলৌকিকভাবে রক্ষা পেলেন প্লেনের ১৩৬ আরোহী

রানওয়েতে ঘণ্টায় প্রায় ২৫০ কিলোমিটার বেগে ছুটছিল এয়ার ইন্ডিয়ার উড়োজাহাজটি। পুরোপুরি আকাশে ভাসার আগ মুহূর্তে উড়োজাহাজটি প্রয়োজনের চেয়ে কম উচ্চতায় উড়ছিল। তাই সামনে পড়ল বিমানবন্দরের দেয়াল। উড়োজাহাজের ধাক্কায় সেই দেয়াল ভেঙে হলো চুরমার। কিন্তু থামল না উড়োজাহাজটি, দেয়াল ভেঙেই উড়াল দিল আকাশে। ক্ষতিগ্রস্ত অবস্থায় আকাশে চার ঘণ্টারও বেশি সময় উড্ডয়নের পর প্রায় এক হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে আরেক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করেছে উড়োজাহাজটি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ভারতের তামিলনাড়ুর ত্রিচি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গতরাতে এ ঘটনা ঘটে। দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উড়োজাহাজটির বেশ কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। কিন্তু বিস্ময়কর ব্যাপার হলো, অবতরণ না করে চার ঘণ্টার পথ পাড়ি দেয় উড়োজাহাজটি। পরে মুম্বাইয়ে উড়োজাহাজটি জরুরি অবতরণ করে। কিন্তু দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা লাগার এ ঘটনায় উড়োজাহাজটির কোনো যাত্রী বা ক্রু হতাহত হননি।

এই উড়োজাহাজটির মডেল হলো বোয়িং ৭৩৭-৮০০। এয়ার ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেস সিরিজের উড়োজাহাজটি রওনা দিয়েছিল দুবাইয়ের উদ্দেশে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা লাগার পরও উড়োজাহাজ বা এর যাত্রীদের ক্ষতি না হওয়া আশ্চর্যজনক ঘটনা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অলৌকিকভাবে বেঁচে গেছেন যাত্রীরা।

এয়ার ইন্ডিয়ার দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘উড়োজাহাজটি ত্রিচি থেকে দুবাই যাচ্ছিল। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার সময় ১৩৬ জন আরোহী নিয়ে উড়োজাহাজটি উড্ডয়ন করে। পরে বিমানবন্দরের স্থানীয় কর্মকর্তারা জানান, বিমানবন্দরের সীমানা দেয়ালের সঙ্গে এটি ধাক্কা খেয়েছে। পরে মুম্বাইয়ে এটি জরুরি অবতরণ করেছে।’

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উড়োজাহাজটির মাঝ বরাবর বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া উড়োজাহাজের ইঞ্জিনের কিছু অংশও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদিকে ত্রিচি বিমানবন্দরের সীমানা দেয়ালের অবস্থাও তথৈবচ। ছবিতে দেখা গেছে, দেয়ালের একটি বড় অংশই ভেঙে গেছে।

তবে দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা লাগার পরও পাইলট কেন আরও চার ঘণ্টা উড়োজাহাজটি চালিয়ে নিয়ে গেলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিমানবন্দরের একটি সূত্র জানিয়েছে, দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কার পরও নিয়ন্ত্রণকক্ষে পাইলট জানিয়েছিলেন, সব স্বাভাবিক আছে! এরই মধ্যে ওই উড়োজাহাজের দুই পাইলটকে দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। শুরু হয়েছে তদন্ত।

%d bloggers like this: