Press "Enter" to skip to content

শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে

শিক্ষকতা পেশা ছেড়ে দিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার পাকেরহাট ডিগ্রি কলেজের অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক সফিউল আযম চৌধুরী। তিনি গতকাল রোববার খানসামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

সফিউল আযম চৌধুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি খানসামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে গতকাল বেলা ২টায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রেজাউল করিমের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন। পরে তিনি পাকেরহাট ডিগ্রি কলেজ মাঠে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ জানুয়ারি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভা করে। সেখানে তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের ভোটে সফিউল আযম চৌধুরীকে প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত করা হয়। পরে উপজেলা কমিটি তাঁর নাম প্রস্তাব আকারে কেন্দ্রে পাঠায়। শেষে খানসামা উপজেলার দলীয় প্রার্থী হিসেবে কেন্দ্রীয় কমিটি তাঁর নাম ঘোষণা করে।

সম্প্রতি খানসামা উপজেলার পাকেরহাট ডিগ্রি কলেজটি সরকারীকরণ করা হলেও এখনো গেজেটভুক্ত হননি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকেরা। তারপরও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা এড়াতে গত ৩১ জানুয়ারি কলেজের প্রভাষক পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি।

সফিউল আযম চৌধুরী আরও বলেন, ‘২৫ বছর ধরে শিক্ষকতা করে আসছি। দীর্ঘ সময়ে আমার অনেক শিক্ষার্থী, শুভাকাঙ্ক্ষী ও তৃণমূলের নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করেই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছি। আগামী নির্বাচনে সবার সহযোগিতা ও আশীর্বাদ নিয়ে নির্বাচিত হয়ে খানসামা উপজেলার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ধারাবাহিকতা রক্ষায় কাজ করে যেতে চাই।’

 উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, এখানে আগামী ১৮ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৫ হাজার ৫৪২। এর মধ্যে নারী ভোটার ৬২ হাজার ১৪৩ জন এবং পুরুষ ভোটার ৬৩ হাজার ৩৯৯ জন। সফিউল আযম ছাড়াও চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন জাতীয় পার্টির একজন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন একজন প্রার্থী।

%d bloggers like this: