Press "Enter" to skip to content

সুবর্ণচরে এবার ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রী, গ্রেপ্তার ২

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ফের ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এবার গণধর্ষণের শিকার হয়েছে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী (১৩)। ভোটের রাতে স্বামী ও চার সন্তানকে বেঁধে রেখে এক নারীকে ধর্ষণের ঘটনার এক মাসের মাথায় গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটল।

এবারের ঘটনাটি একই উপজেলার পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই যুবককে গত শুক্রবার দিবাগত রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে রাতে ওই দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ‘ভুক্তভোগী’ কিশোরীর বড় ভাই। গ্রেপ্তার যুবকেরা হলেন ইসরাফিল আজাদ ওরফে স্বপন (২৩) ও মো. নিজাম (২৩)।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে সুবর্ণচরের চরজব্বর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইব্রাহিম খলিল প্রথম আলোকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে হাতিয়া যাওয়ার জন্য ওই ছাত্রী তার মাকে এগিয়ে দিতে স্থানীয় বুড়ার দোকান পর্যন্ত যায়। তার মা চলে যাওয়ার পর সে বাড়ি ফিরছিল। এ সময় অটোরিকশাচালক ইসরাফিল আজাদ ওরফে স্বপন (২৩) তাকে অটোরিকশায় উঠতে বলে। তখন ওই ছাত্রী ভাড়ার টাকা নেই তাই সে অটোরিকশায় উঠবে না বলে স্বপনকে জানায়।

পরিদর্শক ইব্রাহিম খলিল বলেন, অটোরিকশাচালক আজাদ ছাত্রীর কথা শুনে তাকে বিনা ভাড়ায় বাড়িতে পৌঁছে দেবেন বলে অটোরিকশায় তোলেন। পরে তাকে বিভিন্ন সড়ক ঘুরিয়ে রাত আনুমানিক নয়টার দিকে একটি স্থানে নিয়ে ওই দুজন মিলে ধর্ষণ করেন। পরে রাতে বাড়ি ফিরে মেয়েটি তার পরিবারকে বিষয়টি জানায়।

পুলিশ জানায়, ওই দুই যুবককে আজ আদালতে পাঠিয়ে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। রিমান্ড আবেদনের শুনানি পরবর্তী সময়ে হবে মর্মে আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠিয়েছেন। পাশাপাশি ওই কিশোরীর স্বাস্থ্য পরীক্ষাও ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম প্রথম আলোকে বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে হাসপাতালে আসা এক কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পেতে কয়েক দিন সময় লাগবে।

%d bloggers like this: