বাংলাদেশের বিপক্ষেই তিনবার!

কেন উইলিয়ামসন কাল অপরাজিত ছিলেন ৯৩ রানে। তখনই আশার বাতিঘর দেখতে পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। আর বাংলাদেশ দেখেছে আরও একবার প্রথম তিনের ‘হ্যাটট্রিক’ সেঞ্চুরি হজমের চোখ রাঙানি।

নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক আজ ঠিকই সেঞ্চুরি তুলে নেন। পরে আরও এক শ—মানে সেঞ্চুরিকে ডাবলে রূপ দিয়ে অপরাজিত থেকেছেন তিনি। উইলিয়ামসন সেঞ্চুরির সময়ই ১৬ বছর আগের এক নজির ছুঁয়েছে নিউজিল্যান্ডের এই দলটি। তাঁদের টেস্ট ইতিহাসে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো কোনো ইনিংসে প্রথম তিন ব্যাটসম্যান (টম লাথাম, জিত রাভাল ও উইলিয়ামসন) সেঞ্চুরি করলেন। এর আগে সবশেষ এবং একমাত্র নজির ছিল ২০০৩ সালে মোহালিতে ভারতের বিপক্ষে টেস্টে। সেই টেস্টে সেঞ্চুরি করেছিলেন মার্ক রিচার্ডসন, লু ভিনসেন্ট ও স্কট স্টাইরিস।

স্বাভাবিকভাবেই কিউই ব্যাটসম্যানদের এই ‘তিনে তিন’ সেঞ্চুরিতে মাহমুদউল্লাহর খুশি হওয়ার কোনো কারণ নেই। বাংলাদেশ অধিনায়কের স্মৃতিতে নিশ্চয়ই ব্লুমফন্টেইনের সেই দুঃসহ টেস্টের স্মৃতি ঘাই মেরেছে। বেশি না, দুই বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়ে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে একই জাঁতাকলে পিষ্ট হয়েছিল বাংলাদেশ। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করেছিলেন টপ অর্ডারের প্রথম তিন ব্যাটসম্যানই। পাঁচে নেমে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন ফাফ ডু প্লেসিও। তবে বাংলাদেশের জন্য এক ইনিংসে প্রতিপক্ষ দলের প্রথম তিন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি দেখার তেতো স্মৃতি সেটাই প্রথম নয়।

প্রায় এক যুগ আগে, ২০০৭ সালের ২৫ মে বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট দিয়ে এ সংস্করণে অভিষেক ঘটেছিল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের। সেই টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন ভারতের প্রথম চার ব্যাটসম্যান। প্রতিপক্ষ দলের ইনিংসে প্রথম তিন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি সেবারই প্রথম হজম করেছে বাংলাদেশ। অর্থাৎ হ্যামিল্টন টেস্টসহ মোট তিনবার প্রতিপক্ষ দলের ইনিংসে প্রথম তিন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি দেখল বাংলাদেশ। তবে উইলিয়ামসন আগের দুবারের সঙ্গে ‘ছোট্ট’ একটু পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন। আগের দুটি ইনিংসে প্রথম তিন ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি পেলেও কেউ ডাবলের মুখ দেখেননি। উইলিয়ামসন এখানে ব্যতিক্রম স্বাদ উপহার দিলেন বাংলাদেশকে!

টেস্ট ক্রিকেটে এক ইনিংসে প্রথম তিন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি করার উদাহরণ খুব বেশি নেই। ১৩বার এমনটি দেখা গেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ দলকেই দেখতে হলো তিন-তিনবার!