Press "Enter" to skip to content

পাবনার ঈশ্বরদীতে তারেক জিয়ার অষ্টম কারা মুক্তি দিবস পালিত

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতা ॥ঈশ্বরদীতে উপজেলা ছাত্রদলের উদ্যোগে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের জৈষ্ট পুত্র কেন্দ্রিয় বিএনপির সিনিয়র ঐভমফহ চেয়ারম্যান তারুণ্যের অহংকার তারেক রহমানের অষ্টম কারা মুক্তি দিবস পালন হয়েছে। উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের জয়নগরে বৃহস্প্রতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত উপস্থিত নেতৃবৃন্দ তারেক জিয়ার কারা মুক্তি নিয়ে আলোচনা করেন। 

ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রকির সভাপতিত্বে উপস্থিত থেকে আলোচনা সভায় অংশ নেন পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সিরাজুল ইসলাম সন্টু মাষ্টার, বৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক আজমল হোসেন সুজন, সলিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান, সাহাপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক ভিপি নেফাউর রহমান রাজু, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তাহাজিবুল ইসলাম লাইজু, প্রভাষক রবিউল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মোক্তার হোসেন, উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান মুকুল, আব্দুস সাত্তার বাচ্চু, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মাহাবুল আলম, ছাত্রনেতা মশিউর রহমান রতন, শাহাবুদ্দিন আহমেদ কাজল সরদার, শরীফ হোসেন, শফিকুল ইসলাম শফি, বিপ্লব হোসেন ও জাকারিয়া সেন্টু। অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম মর্তুজা ইয়াহিয়া।

তারেক রহমানের অষ্টম কারা মুক্তি দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা শহিদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। জিয়াউর রহমান খাল খনন, শিল্প বিপ্লব ঘটিয়েছিলেন একই পথে এগুচ্ছিলেন তারেক জিয়া। তারেক রহমান রাজনীতিতে আসার কারণে তৃণমূল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দকে একত্রিত করে ঢেলে সাজিয়েছিলেন। আওয়ামীলীগ সরকার তারেক রহমানের রাজনৈতিক দূরদর্শিতা দেখে ভয় পেয়ে তাকে দেশে ফিরতে দিচ্ছেনা। মঈনুদ্দিন ফখরুদ্দিনের সরকার শেখ হাসিনার সাথে নীলনকশা করে তারেক রহমানকে হত্যা করতে চেয়েছিলেন কিন্তু আল্লাহ তাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। স্বৈরাচারী শেখ হাসিনার ছাত্রলীগ, যুবলীগ ক্যাডার বাহিনীর সাথে যোগ হয়েছে পুলিশ লীগ। বর্তমানে পুলিশ দিয়ে বাকশালীয় কায়দায় দেশ পরিচালনা করেছেন।  ক্ষমতাশীন দলের ক্যাডার বাহিনীর পাশাপাশি পেটোয়া বাহিনী দিয়ে দলের নেতাকর্মীদের হামলা-মামলা দিয়ে জেল-হাজতে প্রেরন করেছে। সকল নেতাকর্মীদের একত্রিত হয়ে আন্দোলনের মাধমে এর থেকে বেড়িয়ে আসার আহ্বান জানান। 

%d bloggers like this: