ঠাকুরগাঁওয়ে নকল নবীশরা জেলা প্রশাসকের নিকট স্বারকলিপি প্রদান করেন

মোঃ ইসলাম,ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ
চাকুরী জাতীয় করণের দাবীতে বাংলাদেশ এক্সটা মোহরার (নকল নবিস) এসোসিয়েশন ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার উদ্যোগে রোববার বিকেলে  ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ডঃ একে কামরুজ্জামান মহোদয়ের নিকট দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান করেছেন। সংগঠনের কর্মকর্তা ও ঠাকুরগাঁও জেলায় কর্মরত প্রায় সকল নকল নবিস গন বিকেলে জেলার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে এই স্মারক লিপি পেশ করেন। এসময় জেলা প্রশাসক তাদের স্বারকলিপি গ্ৰহন করেন এবং দাবীর বিষয়টি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে উপস্থাপনের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন।
সাব রেজিস্ট্রি অফিসে রেজিস্ট্রি করা দলিল বালাম বইয়ে লিপি বদ্ধ করে সংরক্ষ করে রাখার জন্য সরকার প্রতিটি রেজিস্ট্রি অফিসে চুক্তি ভিত্তি অস্থায়ী ভাবে নকল নবিস নিয়োগ প্রদান করেন। এক্সটা মোহরার (নকল নবিস) ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সভাপতির নেতৃত্বে সাধারণ সম্পাদক বাবুল ইসলাম জানান, দেশে ৬১ টি জেলা সদর মহাফেজখানা সহ ৪৯৫ টি সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে পনের হাজার এক্সটা মোহরার (নকল নবিস) জমি ক্রেতাদের রেজিস্ট্রি কৃত দলিল বালাম বইয়ে লিপি বদ্ধ করে স্থায়ী ভাবে রেকর্ড সৃষ্টি করার মাধ্যমে কর্মরত রয়েছে। একজন নকল নবিস এক দিনে ১২ পৃষ্টা লিখতে পাড়ে। এজন্য সরকার তাদের প্রতি পৃষ্টা লিখা ২৪ টাকা করে মজুরী প্রদান করা হয়।
কিন্তু সারা বছর কাজ থাকেনা। বছরে ৬ মাস বসে থাকতে হয়। এক্সটা মোহরার (নকল নবিস) ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক  কাজল রায় বলেন, নকল নবিসরা দীর্ঘ দিন ধরে কাজ করছেন কিন্তু চাকুরী জাতীয় করণ না হওয়ায় তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তিনি ১৯৭৩ সালের জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ঘোষনা,১৯৮৪ সালের বর্তমান প্রধান মন্ত্রী সমর্থন ও ১৯৯৭ সালের আইন মন্ত্রনালয়ের সুপারিশমালার আলোকে বর্তমান সরকারের ঘরে ঘরে কর্মস্ংস্থান সৃষ্টির নির্বাচনী অঙ্গিকার বাস্তবায়নে নকল নবিসদের চাকুরী জাতীয় করণের দাবী করেছেন।